30 C
Dhaka
আগস্ট ২, ২০২১

ভিডিও ছড়ানোর ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ ও অর্থ আদায়, অভিযুক্ত গ্রেফতার

রংপুর প্রতিনিধি: রংপুর মহানগরীতে গোপনে গোসলের ভিডিও ধারণ করে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে গৃহবধূকে একাধিকবার ধর্ষণ ও টাকা আদায়ের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় প্রধান অভিযুক্ত আরিফুল ইসলাম (২০) নামের এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল বুধবার বিকেলে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আকচা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার আরিফুল ইসলাম রংপুর মেট্রোপলিটনের হারাগাছ থানাধীন সিগারেট কোম্পানি বাহার কাছনা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুুুর মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানার ওসি রেজাউল করিম।

তিনি জানান, তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আরিফুলের অবস্থান সনাক্ত করে বুধবার বিকেলে ঠাকুরগাঁওর সদরের আকচা ইউনিয়নের বুটিনা ইসলাম পাড়া গ্রামে তাঁর খালু মজিদের বাড়ী থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

ওইদিন রাত সাড়ে ১১ টার দিকে হারাগাছ থানা নিয়ে আসা হয়। এই মামলায় আরিফুল সহ দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনা সাথে আরো কারা কারা জড়িত তাদেরকে সনাক্ত সহ বাকীদের গ্রেফতারের চেষ্ঠা চলছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত এপ্রিলে ওই গৃহবধূর গোছলের ভিডিও গোপনে ধারণ করেন একই এলাকার আরিফুল ইসলাম। এরপর সেই গোসলের ভিডিও দেখিয়ে আরিফুল ওই গৃহবধূর কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন।

টাকা না দিলে ভিডিওটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেন। সংসার বাঁচাতে বিষয়টি গোপন রেখে জমি কেনার জন্য জমা করা ৪০ হাজার টাকা আরিফুলকে দেন ওই গৃহবধূ।

একই সঙ্গে ভিডিওটি ফেসবুকে না ছড়ানোর জন্য অনুরোধ করেন। এর কিছুদিন পর ফের ওই গৃহবধূকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ৬০ হাজার টাকা আদায় করেন আরিফুল।

৯ এপ্রিল রাতে স্বামীর অনুপস্থিতিতে ওই গৃহবধূর বাড়িতে ঢুকে আরো ১০ হাজার টাকা দাবি করেন আরিফুল। ওই সময় চিৎকার করার চেষ্টা করলে ভিডিওটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেবে বলে হুমকি দেন।

একপর্যায়ে তাকে ধর্ষণ করেন। পরদিন একইভাবে ওই গৃহবধূর বাড়িতে ঢুকে ধর্ষণ করেন আরিফুল। এছাড়া ধর্ষণের ভিডিওটি ফোনে ধারণ করেন। পরে কয়েকজন বন্ধুকে ধর্ষণের ভিডিওটি দেখান আরিফুল।

এরপর বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। পরে ওই গৃহবধূ ঘটনাটি জানালে আত্মসম্মান রক্ষায় পরিবারের লোকজন ঘটনাটি আরিফুলের পরিবারকে জানায়। কিন্তু স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করার কথা বলে কালক্ষেপণ করেন আরিফুলের বাবা আব্দুর রাজ্জাক ও তার দুই চাচা।

পরে উপায়ন্ত না পেয়ে ওই গৃহবধূ পরিবারের পরামর্শে গত রোববার (১৩ জুন) রাতে আরিফুলসহ চারজনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন এবং পর্নগ্রাফী আইনে মামলা করেন। মামলা দায়েরের পর আব্দুর রাজ্জাককে প্রেফতার করা হলেও আরিফুল গা ঢাকা দেন।

রংপুুুর মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানার ওসি রেজাউল করিম বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় গতকাল বিকেলে ঠাকুরগাঁও সদর থানা এলাকা থেকে আরিফুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

কমিউনিটিনিউজ/ এমএএইচ

আরও সংবাদ

করোনায় অসহায়দের ঈদ সামগ্রী দিলো ‘এইচআর একাডেমি’

কমিউনিটি নিউজ

আলোচিত সেই মেয়র দল থেকে বহিষ্কার

কমিউনিটি নিউজ

ভুয়া করোনা সার্টিফিকেট বিক্রি, আটক ৩

কমিউনিটি নিউজ

সিসিটিভির ফুটেজ দেখে ধরা ৪ ছিনতাইকারীকে আটক করলো আরএমপি

কমিউনিটি নিউজ

চারঘাটে ছাগল হাটে উপচে পড়া ভিড়, উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

কমিউনিটি নিউজ

রাজশাহীতে ডেন্টাল ক্লিনিকে চুরি!

কমিউনিটি নিউজ