27 C
Dhaka
ডিসেম্বর ২, ২০২২

‘ঠাণ্ডায় মারা যেতে পারি, তবুও ইউরোপ যাবো’

প্রবাস ডেস্ক , কমিউনিটি নিউজ:

তাপমাত্রা এখন শূর্ণ্য ডিগ্রির নিচে।যেখানে গরম কাপড় পড়ে শীতে লড়াই কঠিন হয়ে পড়েছে। সেখানে অভিসান প্রত্যাশী বাংলাদেশিদের গল্পটা সম্পূর্ণ ভিন্ন। তাদের অনেকেরই নেই উষ্ণ কাপড়, পায়ে নেই জুতা।তাদের একজন বলছিলেন ঠাণ্ডায় আমরা যে কোনো সময় মারা যেতে পারি। আমাদের অবস্থা খুবই খারাপ। মানুষ সাহায্য না করে উল্টো আমাদের জিনিসপত্র লুট করছে।

এমন হৃদয়বিদারক কথাগুলো বলছিলেন ইউরোপে অভিবাসনপ্রত্যাশী বাংলাদেশিরা। তারা বলেন, আমাদের অনেকেই এর আগেও বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেছেন সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ইউরোপে প্রবেশের। কিন্তু পুলিশি বাধার মুখে নিরাস হয়ে ফেরত আসেন বেশির ভাগই।

সীমান্ত পাড়ি দেয়ার সময় পুলিশের নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বলেও অভিযোগ অনেকের। বতর্মানে আমরা তাঁবুতে আশ্রয় নিয়েছি, তীব্র শীতে সেখানে টিকে থাকা আমাদের পক্ষে দুসাধ্য হয়ে পড়েছে।

স্থানীয় এনজিও ‘নো নেম কিচেনের’ একজন স্বেচ্ছাসেবী কর্মী আলবা ডোমিঙ্গুয়েজ পেনা বলকানের দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, এর আগেও ভেলিকার ক্লাদুসার শরণার্থী শিবিরে বাংলাদেশিদের ১০০ জনের মতো বসবাস করতেন। কিন্তু তুষারপাতের কারণে বুধবারের পর সেখান থেকে শরণার্থীরা অন্যত্র চলে গিয়েছেন।

পূর্বে তাদের অনেকে একটি পরিত্যক্ত ফ্যাক্টরিতে আশ্রয় নিয়েছিলেন, কিন্তু বর্তমানে এ ফ্যাক্টরির সার্বিক পরিস্থিতি অনেক বেশি শোচনীয় বলেও তিনি তার সাক্ষাৎকারে উল্লেখ করছেন।

বর্তমানে বসনিয়া সীমান্ত আটকেপড়া বাংলাদেশিসহ কয়েকশ’ অভিবাসনপ্রত্যাশী তীব্র তুষারপাতে চরম মানবেতর জীবন যাপন করছে। তাদের রয়েছে খাদ্য সংকটও। এ অবস্থায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মানবাধিকার সংস্থাগুলো।

এমনেই মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই তার ওপর তীব্র ঠাণ্ডা। তুষারপাতে মানবেতর জীবন যাপন করছেন বসনিয়ার এসব শরণার্থীরা। অস্থায়ী আশ্রয় শিবির যাও ছিল তাও গত মাসে আগুনে পুড়ে ছাই হয়েছে। এরপর থেকেই খোলা আকাশের নিচেও অস্থায়ী পরিত্যক্ত ভবনে আশ্রয় হয়েছে তাদের।

শরণার্থীদের জরুরি ভাবে মানবিক সহায়তা প্রয়োজন বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা। আন্তর্জাতিক অভিবাসন কর্মকর্তা নাতাশা ওমারোভিক বলেন, ‘অনেক শরণার্থী ঠাণ্ডার মধ্যে খোলা আকাশের নিচে থাকতে বাধ্য হচ্ছে।

ভেলিকা ক্লাদুসায় অবস্থানরত বাংলাদেশিদের সাথে কথা বললে তারা জানান, তাদের অধিকাংশই মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ থেকে এখানে এসেছেন। পাড়ি দিয়েছেন দুর্গম পথ।
সরকার চাইলে দেশে ফেরত যাবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তারা জানান, তাদের স্বপ্ন ইতালি, স্পেন যাওয়ার। তারা এ স্বপ্ন ত্যাগ করবেন না।

আরও সংবাদ

আরব আমিরাতে ২৪ ঘণ্টায় তিন হাজার করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ২

কমিউনিটি নিউজ

বাংলাদেশে বৈধ রিক্রুটিং এজেন্সি’র তালিকা প্রকাশ

কমিউনিটি নিউজ

মাল্টার জেলে আটক ১৫৬ বাংলাদেশির নামের তালিকা প্রকাশ

কমিউনিটি নিউজ

ভূমধ্যসাগরে ১৬৪ বাংলাদেশিসহ ৪৩৯ জন অভিবাসী উদ্ধার

কমিউনিটি নিউজ

মে মাসেও প্রবাসীদের আয়ের রেকর্ড

কমিউনিটি নিউজ

কর্মস্থলে ফিরতে চান মালয়েশিয়া প্রবাসীরা

কমিউনিটি নিউজ