27 C
Dhaka
জুন ১৯, ২০২১

কৃষকের স্বপ্ন হারালো বৃষ্টির পানিতে

কৃষকের স্বপ্ন হারালো বৃষ্টির পানিতে

প্রতিনিধি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ:  কারেন্ট পোকাতে প্রথমে কিছু ধান নষ্ট করছে। বাকিটা নষ্ট করলো বৃষ্টিতে। এখন কী করবো? সবার একই অবস্থা। বৃষ্টিতে ধান আর বাড়ি আনা সম্ভব হয়নি। ধানগাছ পচে যাচ্ছে। শুক্রবার এভাবেই বলছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ  নারায়নপুর এলাকার কৃষক নাইমুল হক।

কৃষক নাইমুল হক জানান, এই বিলে সাড়ে ৬ বিঘা জমিতে ধান চাষাবাদ করেছিলাম। কিন্তু বৃহস্পতিবার সারাদিন ও রাতের বৃষ্টিতে দুই বিঘা জমির সম্পূর্ণ ধান ভেসে গেছে। দিনব্যাপী বৃষ্টির কারণে কেটে রাখা ধানগুলো নিরাপদে সরিয়ে নিতেও পারিনি। শুক্রবার সকালে এসে দেখছি ৫ বিঘা জমির একটা ধান নেই। এখন ক্ষেতে হাঁটুপানি জমেছে। ভাসছে কাটা ধান।  মেঘলা আকাশ। এমন অবস্থায় শ্রমিকও পাওয়া যাচ্ছেনা না।

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে চাঁপাইনবাবগঞ্জেও বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শুক্রবার পর্যন্ত মুষলধারে বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে জেলার নিম্নাঞ্চলের অনেক ধানখেত। জমি থেকে ভেসে গেছে কৃষকদের কেটে রাখা ধান। বেশিরভাগ কৃষকের ধান পানির নিচে তলিয়ে গেছে। জেলার সদর উপজেলার অর্ধশতাধিক কৃষকের কয়েক বিঘার জমির ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। অনেকের আঁটি বেঁধে রাখা ধান ভেসে গেছে পানির স্রোতে।

সরেজমিনে দেখা যায়, পুরো মাঠে পানি আর পানি। বৃহস্পতিবার সকালেও বিলের বিস্তৃর্ণ মাঠজুড়ে ছিল ধান। মাঠের বেশিরভাগ ধান কেটে রাখা হয়েছিল শুকানোর জন্য। সেই ধানগুলো পানিতে ডুবে গেছে। অনেকের মোট ধানের প্রায় সিংহভাগই ভেসে গেছে পানিতে।

কৃষকরা জানান, অন্তত কয়েকশ বিঘা জমির ধান কেটে ও বেঁধে রাখা হয়েছিল। কিন্তু সারাদিন-রাতের টানা বৃষ্টিতে পুরো বিলের ধান পানির নিচে তলিয়ে গেছে। বেশিরভাগই ধান ভেসে চলে গেছে পানির স্রোতে। পানি নামার কোনো সুবব্যস্থা না থাকার কারণেই এই সমস্যা হয়েছে। বেশিরভাগ ধান গভীর রাতে নদীতে ভেসে গেছে। এই গ্রামের অনেকেই আবার এসব ভেসে যাওয়া ধান সংগ্রহ করে বাসায় নিয়ে এসেছেন। শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দেখা গেছে, ভেসে যাওয়া ধান সংগ্রহে ব্যস্ত অনেক কৃষক।

কৃষকরা আরো জানান, এখন বিপদে আছেন অনেক কৃষক। অনেকে জমিতে এবার ধান করেছিলো। ধান কাটাও হয়েছে। কিন্তু ধান বাড়িতে আনতে পারেননি। ক্ষেতে পানি জমে কাটা ধান নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। কেউ কেউ ধান ঘরে তুলেছেন কেউ বা তোলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন এমন সময়ে এ দুর্ভোগে পড়ে হতাশ কৃষকরা।

এ বিষয়ে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন, জেলায় বেশিরভাগ ধান ঘরে উঠেছে। তবে হঠাৎ করে সারাদিন ও রাতের বৃষ্টিতে কয়েক জায়গায় কেটে স্তূপ করে রাখা ধান তলিয়ে ও ভেসে যাওয়ায় খবর পেয়েছি।

এবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় বোরো ধানের আবাদ হয়েছে ৪৯ হাজার ৩৫০ হেক্টর জমিতে। আর ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ২ লাখ ২ হাজার ৩৩৫ মেট্রিক টন।

কমিউনিটিনিউজ/ এমএএইচ

আরও সংবাদ

মাস্ক ছাড়াই করোনা ওয়ার্ডে ডিউটি, সাংবাদিক প্রবেশে বাধা

কমিউনিটি

গোদাগাড়ীতে কিশোর গ্যাংয়ের ৫ সদস্য গ্রেফতার

কমিউনিটি

আরইউজে সভাপতি সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত

কমিউনিটি

রাজশাহীতে আরো ১২ জনের মৃত্যু

কমিউনিটি

রাজশাহীতে করোনায় ১০ জনের মৃত্যু

কমিউনিটি

অক্সিজেন-বেড সংকটে রামেক হাসপাতাল

কমিউনিটি