25 C
Dhaka
ডিসেম্বর ২, ২০২২

লকডাউনেও খোলা রাজশাহীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান

https://communitynews.info/

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী: সরকার ঘোষিত সর্বাত্মক ছুটির দ্বিতীয় দফার দ্বিতীয় দিনে রাজশাহীতে অনেকটা ঢিলেঢালাভাবেই লকডাউন পালিত হয়েছে। অনেকেই নির্দেশনা অমান্য করে বাইরে বের হচ্ছেন। আরডিএ মার্কেটসহ নগরীজুড়ে বিভিন্ন এলাকায় খোলা রয়েছে দোকানপাট। দেদারছে বেচাকেনা চলছে গার্মেন্টস দোকানগুলোতে।

নগরীর প্রবেশপথসহ গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে প্রশাসনের কড়াকড়ি থাকলেও মানুষ তা মানছেন না। শহরে মানুষের সমাগম বাড়ছে। অন্যান্য দিনের চেয়ে নগরীতে গণপরিবহন চলাচলও অনেক বেশি লক্ষ্য করা গেছে।

শনিবার  (২৪ এপ্রিল)  সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, সকাল থেকেই দোকান খুলে ব্যবসা শুরু করেছেন নগরীর আরডিএ মার্কেটের ব্যবসায়ীরা। সাহেব বাজারের কাপড় পট্টি, স্বর্ণ পট্টি, বিপনী বিতান ও কোর্ট বাজারের বেশকিছু দোকানসহ নগরজুড়ে অনেক দোকানপাট খোলা রাখতে দেখা গেছে। এদের অনেকেই অর্ধেক শার্টার নামিয়ে দোকান খোলা রাখছেন। প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেলেই বন্ধ করে দিচ্ছেন দোকান।

এছাড়া অন্যান্য দিনের চেয়ে নগরজুড়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীর উপস্থিতি কম ছিল। মোড়গুলোতে পরিবহন চলাচলে নিয়ন্ত্রণ আনা হলেও সাধারণ মানুষকে দেদারছে ঘোরাফেরা করতে দেখা গেছে। আড্ডা জমতে দেখা গেছে নগরীর বিভিন্ন এলাকায়। এক্ষেত্রে প্রশাসনের তেমন কোন তদারকি দেখা যায়নি।

এদিকে, আরডিএ মার্কেট ব্যবসায়ীদের সাথে সভা করেছে জেলা প্রশাসন। সভায় ব্যবসায়ী সমিতির নেতাদের সঙ্গে আলোচনা শেষে মার্কেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু আসলাম।

শনিবার  (২৪ এপ্রিল) সকালে আরডিএ মার্কেটের প্রধান ফটক খুলে দেয়া হয়। বেলা বাড়ার সঙ্গে খুলতে থাকে অধিকাংশ দোকান। তবে দোকানগুলোতে ক্রেতা সমাগম কম লক্ষ্য করা গেছে।

দোকান খোলার ব্যাপারে আরডিএ মার্কেট ব্যবসায়ীরা বলছেন, করোনা পরিস্থিতিতে সরকার ঘোষিত সাত দিনের লকডাউনের মধ্যে তারা কোন দোকানপাট খোলেননি। কিন্তু রমযান উপলক্ষে তাদের অনেক মালামাল মজুত আছে। যেগুলো ঈদের পর লোকসানে বিক্রি করতে হবে। এর মধ্যে কর্মচারীদের বেতন আছে।

দোকানের ভাড়া, বিদ্যুৎ বিলসহ অন্য আরো খরচ আছে। ব্যাংক ঋণের সুদ আছে। দোকান বন্ধ থাকলে এগুলো কিভাবে পরিশোধ করবেন বলে প্রশ্ন রাখেন তারা।

তারা আরো জানান, দুই ঈদকে কেন্দ্র করে তাদের ব্যবসা। গতবার কোন ব্যবসা করতে পারেন নি। এবারো এমনটাই হচ্ছে। তাই বৃহস্পতিবার তারা দোকান খুলেছেন। প্রশাসনের সঙ্গে তারা মিটিং করেছেন। এবং অনুরোধ জানিয়েছেন যেন তাদেরকে সীমিত পরিসরে হলেও দোকান খোলা রাখতে দেয়া হয়।

আরডিএ মার্কেট ক্রোকারিজ ব্যবসায়ী সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইয়াসিন আলী জানান, তাদের দোকানগুলো অনেক দিন থেকে বন্ধ আছে। তারা আজকে দোকান খোলা রেখেছেন। প্রশাসনের সঙ্গে এ বিষয়ে তাদের আলোচনা হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখনও কোন সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি। তবে যদি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয় তবে ব্যবসায়ীরা বসে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু আসলাম জানান, সরকারের দ্বিতীয় দফা কঠোর লকডাউন ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। এর আগে জরুরি প্রয়োজন ব্যতীত কোন দোকান বা মার্কেট খোলা রাখা যাবে না। এবং তা নিশ্চিতে তারা কাজ করে যাচ্ছেন। আরডিএ মার্কেটের ব্যবসায়ীরা বৃহস্পতিবার দোকান খুলেছেন। তাদের নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। সেখানে ব্যবসায়ী নেতাদেরকে দোকান বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক জানান, অন্যান্য দিনের মতোই নগরজুড়ে লকডাউন বাস্তবায়নে পুলিশ কাজ করছে। জরুরি সেবা ছাড়া অন্যান্য ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জোরদার করা হয়েছে। আর আরডিএ মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সাথে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে মিটিং হয়েছে। তাদেরকে দোকান বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। তারাও এ সিদ্ধান্তে সম্মতি জানিয়েছেন বলে জানান তিনি।

কমিউনিটিনিউজ/ এমএএইচ 

আরও সংবাদ

রাজশাহীতে গাঁজাসহ যুবক আটক

কমিউনিটি নিউজ

রাজশাহী কলেজে চালু হলো মেধাবৃত্তি

কমিউনিটি নিউজ

পুলিশের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন দিলেন যুবক

কমিউনিটি নিউজ

২০ টাকার নাপা সিরাপ ৩৫ টাকায় বিক্রি, জরিমানা

কমিউনিটি নিউজ

আমের দামে খুশি রাজশাহীর চাষিরা

কমিউনিটি নিউজ

রামেক হাসপাতালে ভর্তি সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম

কমিউনিটি নিউজ