33 C
Dhaka
মে ১৫, ২০২১

কঠোর লকডাউনের আগের দিন কেনাকাটার হিড়িক

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী: আগামী ১৪ এপ্রিল বাংলা নববর্ষের ও পবিত্র রমজান মাসের প্রথম দিন। একই সাথে শুরু হবে সরকারের ঘোষিত দ্বিতীয় দফা লকডাউনের প্রথম দিন। কঠোর এই লকডাউনের ঘোষণার আগেই রাজশাহীর বিভিন্ন সড়ক, বিপণী বিতান ও বাজারগুলোতে নেমেছে কেনাকাটার হিড়িক। এছাড়াও সরকারী ও বেসরকারী ব্যংকের সামনে গ্রাহকদের লম্বা সারি চোখে পড়ার মত। এই উপলক্ষকে ঘিরে মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল ২০২১) উপচে পড়া ভিড়ে কারো যেন পা ফেলার ঠাঁয় ছিল না বিভিন্ন মার্কেটসহ প্রধান সড়কগুলোতে।

আজ সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, নগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্ট, আরডিএ মার্কেট, গণকপাড়া, নিউ মার্কেট, কোর্ট বাজার, হড়গ্রাম বাজারসহ সব ধরনের দোকান শপিংমল ও শো-রুমগুলোতে ক্রেতাদের অতিরিক্ত সমাগম দেখতে পাওয়া গেছে।

আরো পড়ৃুন:

এদিন অন্যান্য দিনের তুলনায় পণ্য অন্তত তিনগুণ বেশি বিক্রি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। এতে বেশ খুশি তারা।  তবে লকডাউনের সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রিকশা-অটোরিকশা চালক, সাধারণ ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ।

চৈত্র মাসের গরমের মধ্যেও বিপণী বিতানগুলোতে ঠেলাঠেলি করে কেনাকাটা করছেন মানুষ। অধিকাংশ ক্রেতার মাঝে মাস্ক ব্যবহারের প্রবণতা থাকলেও মানছেন না সামাজিক দূরত্ব। টিসিবির পণ্য বিক্রির পয়েন্টগুলোতে ছিল ক্রেতাদের লম্বা সারি। ক্রেতাদের ধারণা, সরকারীভাবে জারিকৃত সাতদিনের কঠোর লকডউন বৃদ্ধি পেয়ে ঈদুল ফিতর পর্যন্ত বহাল থাকতে পারে। তাই তারা ঈদের কেনাকেটাও কিছুটা সেরে ফেলছেন। সেজন্য করোনার উচ্চ সংক্রমণের ঝুঁকির পরও আগাম কেনাকাটায় বাজারমুখী হয়েছেন তারা। তবে এসব কেনাকাটায় জনসাধারণের মুখে মাস্ক পরিধান করতে দেখা গেলেও তেমনভাবে সামাজিক দূরত্ব মানতে দেখা যায়নি। এছাড়াও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান গুলোতে হ্যান্ড স্যানিটাইজিং স্প্রে রাখার নির্দেশনা প্রদান করা হলেও সেগুলোরও কোন বাস্তবিক রুপ দেখা মেলেনি।

আরো পড়ুন

রাজশাহীতে হিটশকে ক্ষতি ১০ শতাংশ ধান

তবে পুলিশকে মার্কেটের গলিগুলোতে হেঁটে হেঁটে হ্যান্ড মাইক দিয়ে মুখে মাস্ক ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে বারবার সতর্ক করতে দেখা গেছে। অন্যদিকে, স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে ক্রেতাদের সাথে কথা বলা হলে তারা কেউ মুচকি হেসে বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছে আবার কেউ কেউ বলছে প্রয়োজনের তাগিদেই বাজারে এসেছে বলে জানান।

রাজশাহীর নিউ মার্কেটে বাজার করতে আসা শামীম রেজার সাথে হলে তিনি বলেন, “সরকার এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করলেও সাতদিন পর সবকিছু খুলে দেয়া হবে না। স্কুল-কলেজ খোলার ব্যাপারে যেমনটা বারবার ছুটি বাড়ানো হয়েছে, এবার লকডাউনও ঠিক তেমনি বাড়ানো হবে। তাই করোনার স্বাস্থ্য ঝুঁকি থাকলেও ৩৫ কিলোমিটার দূর থেকে শহরে কেনাকাটা করতে বাজারে এসেছি। কাছে টাকা না থাকলেও বৃদ্ধ মা-বাবা ও পরিবারের জন্য ঈদের বাজার করতে এক বন্ধুর কাছ থেকে টাকা ধার নিয়েই অগ্রিম শপিং সম্পন্ন করেছি।”

বিক্রেতারা জানান, মঙ্গলবার ঈদের বাজারের চেয়ে কোনো অংশে কম হয়নি বেচাকেনা। ক্রেতাদের অতিরিক্ত উপস্থিতির ফলে এদিন তারা ঠিকমতো খাবার খাওয়ারই সময় পাননি। লাভও হয়েছে অনেক বেশি। তবে লকডাউনে সবকিছু বন্ধ করতে হলে তারা চরম আর্থিক শঙ্কটে পড়ে সংসার নিয়ে হুমকির মুখে পড়বেন বলেও আশঙ্কা। তাই রাজশাহীর ব্যবসায়ীরা মঙ্গলবার শেষবারের মতো সরকারের কাছে লকডাউন প্রত্যাহারের দাবি জানান।

রাজশাহী ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ মামুদ হাসান বলেন, সাধারণ ব্যবসায়ীদের দুঃখ-কষ্ট ও অর্থনৈতিক মন্দায় পথে বসতে যাওয়ায় তাদের সংগঠন মার্কেট খোলা রাখতে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে স্মারকলিপি দেয়। কিন্ত ইতিবাচক কোনো সাড়া না দিয়ে উল্টো কঠোর লকডাউনের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। নিম্ন আয়ের দোকানদার ও খেটে খাওয়া মানুষের কান্না দেখে নিজেকে সামলানো যাচ্ছে না।

এদিকে লকডাউনের খবরে রাজশাহী রাস্তাঘাটে ছিল মানুষের উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি। শহর ছেড়ে অনেকে গ্রামে গেছেন পরিবারের সঙ্গে ঈদ করার জন্য। অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে হলেও শহর ছেড়েছেন অনেকেই। এদিন রিকশা-অটোরিকশা চালকরা অন্যদিনের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি উপার্জন করেছেন বলে রিকশা গ্যারেজ সূত্রে জানা গেছে। তবে বুধবার থেকে কঠোরভাবে লকডাউন কার্যকরে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আবু আসলাম  বলেন, “মানুষের মধ্যে কেনাকাটার জন্য ভিড় ছিল এটা সঠিক।স্বাস্থ্যবিধি মানতে জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করতে মাঠে ছিল প্রশাসন। তবে লকডাউন শতভাগ কার্যকর করতে সার্বিক প্রস্ততি নেয়া হয়েছে।”

এ ব্যাপারে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক বলেন, “লকডাউন কার্যকরে আরএমপির সকল থানায় প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মুভমেন্ট পাস ছাড়া কেউ বাইরে বের হতে পারবে না। তবে সাংবাদিক ও জরুরী সংবাদপত্রের সঙ্গে সম্পৃক্ত হকার-কর্মচারিদের ক্ষেত্রে কঠোরতা শিথিলযোগ্য।

ব্যাবসায়ীরা জানান, কঠোর লকডাউন ৭ দিনের ঘোষণা দিলেও আদৌ কবে তা শেষ হবে সেই অনিশ্চয়তা থেকেই সকল শ্রেণী পেশার মানুষ ঈদের কেনাকাটা সেরে নিচ্ছে।

এদিকে মানুষকে ঘরে রাখতে সরকার কঠোর অবস্থানে থাকবে এমন নির্দেশনাও ইতোমধ্যে জারি করা হয়েছে।

কমিউনিটিনিউজ/ এমএএইচ

করোনায় আরও ৬৯ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে ৬৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৮৯১ জনে। একই সময়ে শনাক্ত হয়েছেন ৬ হাজার ২৮ জন। এতে করে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ৬ লাখ ৯৭ হাজার ৯৮৫ জনে। মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল২০২১ ) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রীনা ফ্লোরা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৮৫৩ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৮৫ হাজার ৯৬৬ জন।

জেনে নেই কোন বিভাগে কতজনের মৃত্যু ও সুস্থ হয়েছে:

  • ঢাকা: সুস্থ ৩০০৪ জন, মৃত্যু ৪১ জন
  • চট্টগ্রাম: সুস্থ ১৬০২ জন, মৃত্যু ১৩ জন
  • বরিশাল: সুস্থ ১৪ জন, মৃত্যু ৩ জন
  • খুলনা: সুস্থ ৪৪ জন, মৃত্যু ৩ জন
  • রাজশাহী: সুস্থ ৫১ জন, মৃত্যু ৩ জন
  • সিলেট: সুস্থ ৮১ জন, মৃত্যু ২ জন
  • রংপুর: সুস্থ ৪১ জন, মৃত্যু ৩ জন
  • ময়মনসিংহ: সুস্থ ৩০ জন, মৃত্যু ১ জন

এ সময়ে ৩৩ হাজার ৬১৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষা করা হয়েছে ৩২ হাজার ৯৫৫টি। দেশে এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫০ লাখ ৭০ হাজার ৭৮৮টি। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ২৯ শতাংশ। মোট পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৬৯ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগেরই রয়েছেন ৪১ জন। এছাড়া চট্টগ্রামে ১৩, রাজশাহীতে ৩, খুলনায় ৩, বরিশালে ৩, সিলেটে ২ এবং রংপুরে ৩ এবং ময়মনসিংহ বিভাগের ১ জন রয়েছেন।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৬৯ জনের মধ্যে ৪৩ জন পুরুষ, বাকি ২৬ জন নারী। এদের মধ্যে ৬৩ জন হাসপাতালে মারা গেছেন। বাড়িতে ৫ জন এবং অন্যজনকে হাসপাতালে আনার পথে মারা যান। এ পর্যন্ত ভাইরাসটিতে মোট মারা যাওয়া ৯ হাজার ৮৯১ জনের মধ্যে পুরুষ ৭ হাজার ৩৭৬ জন এবং নারী ২ হাজার ৫১৫ জন।

আরো পড়ুন:

বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, মারা যাওয়া ৬৯ জনের মধ্যে ৩৯ জনেরই বয়স ৬০ বছরের বেশি। এছাড়া ৫১ থেকে ৬০ বছরের ২০, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ৭ এবং ৩১ থেকে ৪০ বছরের ৩ জন রয়েছেন।

এর আগের দিন সোমবার (১২ এপ্রিল) দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন ৭ হাজার ৮২২ জন। মারা যান ৮৩ জন। যা একদিনে দেশে ভাইরাসটিতে সর্বোচ্চ মৃত্যু।

আরো পড়ুন:

সব রেকর্ড ভেঙে ৭৮ জনের মৃত্যু

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম তিনজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

বিশ্বেরর অবস্থান

সারা বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১৩ কোটি ৭২ লাখের বেশি। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২৯ লাখ ৫৮ হাজারের বেশি মানুষের। এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাস সৃষ্ট মহামারি কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১১ কোটি ৪ লাখের বেশি রোগী।মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১৩ কোটি ৭২ লাখ ৫২ হাজার ৬২১ জন। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২৯ লাখ ৫৮ হাজার ৬২৯ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১১ কোটি ৪ লাখ ৩৩ হাজার ১৬৩ জন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, সারা বিশ্বে এখন করোনা আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় রয়েছেন ১ লাখ ৩ হাজার ৯০৯ জন।

বিশ্বে কোন দেশের অবস্থান কোথায়?

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫ লাখ ৭৬ হাজার ২৯৮ জন মারা গেছেন। এছাড়া করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ কোটি ১৯ লাখ ৯০ হাজার ১৪৩ জনের। সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৪৫ লাখ ৬০ হাজার ৮৫৬ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনায় এখন সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত দেশ ভারত। দেশটিতে ১ কোটি ৩৬ লাখ ৮৬ হাজার ৭৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ লাখ ৭১ হাজার ৮৯ জন।

আক্রান্ত বিবেচনায় এর পরের ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ব্রাজিল। লাতিন আমেরিকার এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৩৫ লাখ ২১ হাজার ৪০৯ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ৩ লাখ ৫৫ হাজার ৩১ জন।

কমিউনিটিনিউজ/ এমএএইচ 

আরও সংবাদ

স্বপ্নের ঠিকানা পাচ্ছে চারঘাটের আরও ১০ পরিবার

কমিউনিটি

আড়াই’শ পরিবারের পাশে বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যান লাভলু

কমিউনিটি

করোনায় জুয়ায় ঝুঁকে পড়ছে শিশুরা

কমিউনিটি

করোনায় রাজশাহী জেলা আ.লীগ সভাপতি মেরাজ মোল্লার ইন্তেকাল

কমিউনিটি

রডের বদলে রাস্তার গ্রিল, প্রকল্পের পাঁচ মেট্রিকটন লোহা গায়েব

কমিউনিটি

নওগাঁয় ইয়াবাসহ ছাত্রলীগ নেতা আটক

কমিউনিটি