27 C
Dhaka
ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২৩

ফল ও সবজি জীবাণুমুক্ত করুন নিমিষেই

স্বাস্থ্য ডেস্ক: করোনাভাইরাস মহামারির দাপটে কাঁপছে পুরো বিশ্ব। লকডাউনে থমকে গেছে জীবন। প্রাণঘাতী এই ভাইরাস হানা দিয়েছে আমাদের দেশেও। ইতোমধ্যে ভাইরাসটিতে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৭৮১ জনে।

সাম্প্রতিক সময়ে জীবাণু দেখেনি বিশ্ব। ভাইরাসটির বিস্তার রোধে সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে। সবাইকে থাকতে বলেছে নিজ নিজ বাসাতে। নিজেকে এবং চারপাশ পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত রাখা সবসময়ই অপরিহার্য । এখন যখন আমরা একটি অত্যন্ত সংক্রামক ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছি, এই সময়ে তা আরও বেশি জরুরি হয়ে পড়েছে। শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ও সুস্থ শরীর মহামারী থেকে নিজেকে রক্ষা করার প্রথম ধাপ। সুরক্ষিত থাকতে আপনি ঘরের মেঝে পরিষ্কারের জন্য জীবাণুনাশক ব্যবহার করতে পারেন, কিন্তু বাজার থেকে যে সবজি এবং ফল কিনে আনা হয়, সেগুলো জীবাণুমুক্ত করার উপায় কী? কি করে বা জীবাণু দুর করবো ?

জেনে নেই নিমিষেই কিভাবে রোগজীবাণুমুক্ত করা যায়…

বাজার এবং রোগজীবাণু
শীততাপ নিয়ন্ত্রিত সুপার শপ হোক কিংবা ফুটপাত থেকে, আপনি যেখান থেকেই শাকসবজি এবং ফলমূল কেনেন না কেন, এগুলো যে জীবাণুমুক্ত সেই নিশ্চয়তা আপনাকে কেউ দিতে পারবে না। বিভিন্ন উৎস থেকে সবজি এবং ফল সংগ্রহ করা হয় এবং তারপরে সেগুলো বাজারে পৌঁছায়। কীভাবে সেগুলো পরিবহণ করা হয়েছিল এবং কীভাবে রাখা হয়েছিল তা আপনি জানেন না। এছাড়াও, বাজারের স্থান সাধারণত আর্দ্র থাকে যা ব্যাকটিরিয়ার জন্য নিখুঁত প্রজনন ক্ষেত্র। সুতরাং, আপনি ঘরে যে ফল এবং শাকসবজি নিয়ে আসেন সেগুলো জীবাণুমুক্ত করাও সমান জরুরি।

পাঁচটি উপায়ের কথা যা মেনে চললে ফল ও শাকসবজি জীবাণুমুক্ত করা সম্ভব। জেনে নিন সেগুলো কী-

  • জীবাণুনাশক, ক্লিনিং ওয়াইপ বা সাবান ফল ও শাকসবজি পরিষ্কারে ব্যবহার করা উচিত নয়।
  • ফলমূল ও শাকসবজি সঠিকভাবে পরিষ্কার করার পরে এগুলো সঠিক জায়গায় রাখুন। যেগুলো ফ্রিজে রাখা যায়, সেগুলো ফ্রিজে রাখুন। যেগুলো ফ্রিজে রাখার দরকার নেই সেগুলো একটি ঝুড়ি বা র্যাকে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রাখুন।
  • বিক্রেতাদের কাছ থেকে কেনা ফল এবং শাকসবজি সঙ্গে সঙ্গে ফ্রিজে রাখবেন না। এগুলো প্যাকেটের মধ্যেই আলাদা জায়গায় রেখে দিন।
  • শাকসবজি এবং ফলগুলো একটি বড় পাত্রে রাখুন এবং পানিতে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। আপনি গরম পানিতে এক ফোঁটা ৫০পিপিএম ক্লোরিন মিশিয়ে তাতে কয়েক মিনিটের জন্য এগুলো ডুবিয়ে রাখতে পারেন।
  • ফল ও সবজি সব সময় বিশুদ্ধ পানি দিয়ে পরিষ্কার করুন।

আরও কিছু করণীয়:

* প্যাকেটবন্দি খাবারের ক্ষেত্রে খাবারের প্যাকেট অ্যালকোহল-ভিত্তিক দ্রবণ বা সাবান এবং পরিষ্কার পানিতে মুছে জীবাণুমুক্ত করুন।

* খাবারের জিনিস ধুয়ে নেয়ার পর আপনার হাত এবং যে জায়গায় পরিষ্কার করেছেন সেই জায়গাও জীবাণুমুক্ত করে নিন। সিঙ্কের পরিষ্কারের পাশাপাশি এর চারপাশের মেঝেও পরিষ্কার করে নিন।

* ঘরে প্রবেশের সাথে সাথে ৩০ সেকেন্ডের জন্য আপনার হাত সাবান এবং পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। হাত পরিষ্কার করার আগে ঘরের ভেতরে কোনো কিছু ছোঁবেন না।

* বাড়িতে পৌঁছানোর পরে আপনার জামাকাপড় পরিবর্তন করুন এবং ব্যবহৃত কাপড়গুলো আলাদা ওয়াশিং বাক্সে রাখুন বা সম্ভব হলে ধুয়ে ফেলুন।

* বাজার থেকে ফিরে আপনি জুতা বাড়ির ভিতরে আনবেন না।

কমিউনিটিনিউজ/ এমএএইচ 

করোনায় দেশে আরও ৯৮ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ৯৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১০ হাজার ৭৮১ জনে। এ সময় শনাক্ত হয়েছেন ৪ হাজার ১৪ জন। এতে মোট শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭ লাখ ৩৬ হাজার ৭৪ জনে।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রীনা ফ্লোরা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে হয়েছে, ২৪ ঘণ্টায় ২৭ হাজার ৭৮৭ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষা করা হয়েছে ২৭ হাজার ৪২৯টি। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৬৩ শতাংশ। দেশে এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫২ লাখ ৭৭ হাজার ১১২টি। মোট পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

আরো পড়ুন:

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ৭ হাজার ২৬৬ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ৪২ হাজার ৪৪৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৯৮ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগেরই ৫৫ জন।

জেনে নেই কোন বিভাগে কতজনের মৃত্যু ও সুস্থ হয়েছে:

  • ঢাকা: সুস্থ ৩৯৭৫ জন, মৃত্যু ৫৫ জন
  • চট্টগ্রাম: সুস্থ ২৪৯০ জন, মৃত্যু ২০ জন
  • বরিশাল: সুস্থ ৬৭ জন, মৃত্যু ০
  • খুলনা: সুস্থ ২৬৩ জন, মৃত্যু ৫ জন
  • রাজশাহী: সুস্থ ১৭২ জন, মৃত্যু ৬ জন
  • সিলেট: সুস্থ ১৪২ জন, মৃত্যু ৪ জন
  • রংপুর: সুস্থ ১০৭ জন, মৃত্যু ৩ জন
  • ময়মনসিংহ: সুস্থ ৫০ জন, মৃত্যু ৫ জন

২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ৬২ জন পুরুষ এবং ৩৬ জন নারী। এদের মধ্যে ৯২ জন হাসপাতালে বাকি ৬ জন বাড়িতে মারা গেছেন। এ পর্যন্ত ভাইরাসটিতে মোট মারা যাওয়া ১০ হাজার ৭৮১ জনের মধ্যে পুরুষ ৭ হাজার ৯৪৮ জন এবং নারী ২ হাজার ৮৩৩ জন।

আরো পড়ুন:

বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ৫৯ জনেরই বয়স ৬০ বছরের বেশি। এছাড়া ৫১ থেকে ৬০ বছরের ২০, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ১৪, ৩১ থেকে ৪০ বছরের ২, ২১ থেকে ৩১ বছরের ১ এবং ১১ থেকে ২০ বছরের ২ জন রয়েছেন।

বিশ্বের অবস্থান

করোনা মহামারির থাবায় বিশ্বজুড়ে সংক্রমণ ও প্রাণহানি অব্যাহত রয়েছে। ভয়াবহভাবে বেড়েই চলেছে ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৪ হাজারের বেশি মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৮ লাখ ৮১ হাজার মানুষ।

এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৪ কোটি ৪৪ লাখ ৩০ হাজার। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩০ লাখ ৭১ হাজার। ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় বেড়েছে সংক্রমণ ও প্রাণহানির সংখ্যা।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৪ হাজার ৮৮ জন। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৩০ লাখ ৭১ হাজার ৫৮৯ জনে।

এছাড়া, একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৮০ হাজার ৯৭৭ জন। এতে ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ কোটি ৪৪ লাখ ৩০ হাজার ৪৭৭ জনে।

বিশ্বে কোন দেশের অবস্থান কোথায়?

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৩ কোটি ২৬ লাখ ২ হাজার ৫১ জন করোনায় আক্রান্ত এবং ৫ লাখ ৮৩ হাজার ৩৩০ জন মারা গেছেন। লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগী এক কোটি ৪১ লাখ ২২ হাজার ৭৯৫ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৮১ হাজার ৬৮৭ জনের।

অন্যদিকে করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত এক কোটি ৫৯ লাখ ২৪ হাজার ৮০৬ জন এবং মারা গেছেন ১ লাখ ৮৪ হাজার ৬৭২ জন।

এছাড়া এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে ৫৩ লাখ ৭৪ হাজার ২৮৮ জন, রাশিয়ায় ৪৭ লাখ ২৭ হাজার ১২৫ জন, যুক্তরাজ্যে ৪৩ লাখ ৯৫ হাজার ৭০৩ জন, ইতালি ৩৯ লাখ ৪ হাজার ৮৯৯ জন, তুরস্কে ৪৪ লাখ ৪৬ হাজার ৫৯১ জন, স্পেনে ৩৪ লাখ ৪৬ হাজার ৭২ জন, জার্মানি ৩২ লাখ ৮ হাজার ৬৭২ জন এবং মেক্সিকোতে ২৩ লাখ ১৫ হাজার ৮১১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

অন্যদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে এক লাখ এক হাজার ৮৮১ জন, রাশিয়ায় এক লাখ ৬ হাজার ৭০৬ জন, যুক্তরাজ্যে এক লাখ ২৭ হাজার ৩২৭ জন, ইতালিতে এক লাখ ১৭ হাজার ৭৯৭ জন, তুরস্কে ৩৬ হাজার ৯৭৫ জন, স্পেনে ৭৭ হাজার ৩৬৪ জন, জার্মানিতে ৮১ হাজার ৩৮২ জন এবং মেক্সিকোতে ২ লাখ ১৩ হাজার ৫৯৭ জন মারা গেছেন।

কমিউনিটিনিউজ/ এমএএইচ 

আরও সংবাদ

সাগরে লঘুচাপ নিন্মচাপে পরিণত

কমিউনিটি নিউজ

সোমবারের পোল্ট্রির ডিম মুরগি ও বাচ্চার পাইকারি দাম

কমিউনিটি নিউজ

সাগরে লঘুচাপের পূর্বাভাস দিল দপ্তর

কমিউনিটি নিউজ

বৃহস্পতিবারের পোল্ট্রির ডিম মুরগি ও বাচ্চার পাইকারি দাম

কমিউনিটি নিউজ

বুধবারের পোল্ট্রির ডিম মুরগি ও বাচ্চার পাইকারি দাম

কমিউনিটি নিউজ

মঙ্গলবারের পোল্ট্রির ডিম মুরগি ও বাচ্চার পাইকারি দাম

কমিউনিটি নিউজ