27 C
Dhaka
আগস্ট ১২, ২০২২

১৪৯বছরে পা রাখলো রাজশাহী কলেজ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী: ১৪৮ বছর পেরিয়ে ১৪৯ তম বছরে পা রাখলো দেশসেরা রাজশাহী কলেজ। বৃহস্পতিবার ( ১ এপ্রিল, ২০২১) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে কলেজের প্রশাসন ভবনের সামনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে কেক কেটে ও বেলুন ফেস্টুন উড়িয়ে প্রতিষ্ঠাবাষির্কী উদযাপন করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কলেজের সম্মানিত অধ্যক্ষ ( ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর মোহা: আব্দুল খালেক, সদ্য বিদায়ী অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান, রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. জুবাইদা আয়েশা সিদ্দীকা, রাজশাহী কলেজ শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক প্রফেসর মো: আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. শিখা সরকার, ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর মোহাম্মদ নাফিজ, গণিত বিভাগের বিভাগীয় প্রধান( ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর মো: শহিদুল ইসলাম, সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. নাজনীন সুলতানা, মনোবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর পার্থ সারথি বিশ্বাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মোসা: ইয়াসমীন আক্তার সারমিনসহ কলেজের অন্যান্য শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

কমিউনিটি/ এমএএইচ

ভাষা সৈনিক আবুল হোসেনের দাফন সম্পন্ন

ভাষা সৈনিক আবুল হোসেনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার (৩১ মার্চ) রাতে রাজশাহীর ভুবন মোহন শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে আন্দোলনের স্মৃতিসৌধে সর্বজনের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তাঁর মরদেহ টিকাপাড়া থেকে মহানগর ঈদগাহ ময়দানে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। পরে দোয়া শেষে পাশেই টিকাপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হয়।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ভাষা সৈনিক আবুল হোসেন বার্ধক্যজনিত কারণে বুধবার (৩১ মার্চ) বিকেলে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)।

ভাষাসৈনিক আবুল হোসেনের বয়স হয়েছিলো ৮৭ বছর। তিনি দুই ছেলে, এক মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার সহধর্মিণী আগেই মৃত্যুবরণ করেছেন।

আবুল হোসেনের বড় ছেলে আবুল হাসনাত বিদ্যুৎ জানান, বুধবার দুপুরের পর হঠাৎ করেই তার বাবার কোনো সাড়া শব্দ পাচ্ছিলেন না। বিকেল ৪টা ১৫ মিনিটে রামেক হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে মৃত ঘোষণা করেন।

জীবদ্দশায় রাজশাহীর ভাষা সৈনিক আবুল হোসেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি, রাজশাহী সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ও অসাম্প্রদায়িক আন্দোলনের সামনের সারিতে ছিলেন। ভাষাসৈনিক আবুল হোসেনের মৃত্যুতে রাজশাহীর রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গণে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

জানাজা নামাজে রাসিক মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনসহ রাজশাহীর রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, বরেণ্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ সর্বস্তরের জনাসাধারণ অংশ নেন।জানাজা নামাজের আগে সেখানে স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য দেন মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন।

স্মৃতিচারণ করে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য দেন- ভাষা সৈনিক আবুল হোসেনের ছেলে আবুল হাসনাত বিদ্যুৎ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার ও কবি আরিফুল হক কুমার।

এছাড়া তার জানাজা নামাজে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা, রাজশাহী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান, শাহ মখদুম কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আমিনুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, শাহাদত হোসেন, নাইমুল হুদা রানা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক পিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসলাম সরকার, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট রাজশাহীর সাধারণ সম্পাদক দিলিপ কুমার ঘোষ, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামারুল্লাহ সরকার, ঋতিক ঘটক ফ্লিম সোসাইটির সভাপতি ডা. এফএম এ জাহিদ, রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সভাপতি রমজান আলী, সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন বাচ্চুসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী সংগঠনের নেতাসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।

কমিউনিটি/ এমএএইচ

আরও সংবাদ

রাজশাহীতে গাঁজাসহ যুবক আটক

কমিউনিটি নিউজ

রাজশাহী কলেজে চালু হলো মেধাবৃত্তি

কমিউনিটি নিউজ

পুলিশের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন দিলেন যুবক

কমিউনিটি নিউজ

২০ টাকার নাপা সিরাপ ৩৫ টাকায় বিক্রি, জরিমানা

কমিউনিটি নিউজ

আমের দামে খুশি রাজশাহীর চাষিরা

কমিউনিটি নিউজ

রামেক হাসপাতালে ভর্তি সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম

কমিউনিটি নিউজ